20 Apr 2019   12:02:14 PM   Saturday   BdST

দালাল দিয়ে ভরে গেছে ঠাকুরগাঁওয়ের বিআরটিএ অফিস

রহিম শুভ ঠাকুরগাঁও:  ঠাকুরগাঁওয়ে বিআরটিএতে লাইসেন্স করতে এসে ভোগান্তি শিকার হচ্ছে লাইসেন্সধারিরা। উৎকোচ ছাড়া সময়মত লাইসেন্স না পাওয়ার অভিযোগ ভুক্তভোগীদের। অন্যদিকে জেলা বিআরটিএ এর প্রধানের নির্দেশেই বহিরাগতরা অফিস রুমে প্রবেশ করে সকল কাজে নিয়জিত রয়েছে। তবে জেলা বিআরটিএ এর সহকারী পরিচালক বলছেন, বহিরাগতদের কাজ করতে না দিলে ঝামেলা করে। তাই উপায় না পেয়ে করতে দিতে হয়।

 
জেলা শহরের ইসলামবাগ এলাকার আতাউর রহমানের অভিযোগ গত ৯ মাস আগে ড্রাইভিং লাইসেন্স নবায়ন করতে দেয়া হয় ঠাকুরগাঁও বিআরটিএ অফিসে। দীর্ঘ ৯ মাস পেরিয়ে গেলে এখনো মিলছে না লাইসেন্স। অফিসে বার বার ধর্না দিলে নয় ছয় দিয়ে আসা যাওয়ায় সীমাবদ্ধ। নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক এক ভুক্তভোগী জানান, আমি কয়েক দিন আগে লাইসেন্সের জন্য অফিসের এক ব্যক্তিকে টাকা দিয়েছি এখন তাকে পাচ্ছি না। কে দালাল আর কে অফিসের লোক আমরা তো জানি না। অফিসের ভেতরে যে থাকে তাকেই আমরা অফিসের লোক মনে করবো এটাই স্বাভাবিক। আমরা চাই দালাল মুক্ত বিআরটিএ অফিস। 

 
এছাড়া হরিপুর ও বালিয়াডাঙ্গী থেকে আসা কয়েকজন ভুক্তভোগী জানান, রেজিষ্ট্রেশন বলেন আর ড্রাইভিং লাইসেন্স বলেন কোনোটাই টাকা ছাড়া মিলে না এ অফিস থেকে। আর এসব সহকারী পরিচালকের নির্দেশেই হয় বলে অভিযোগ তাদের। টাকা না দিলে মাসের পর মাস ঘুরতে হয়। সরকার অফিসগুলো দুর্নীতিমুক্ত করার চেষ্টা করলে এসব অফিসারের কারণে তা সম্ভব নয়।    

 
বিআরটিএ ঠাকুরগাঁও ও পঞ্চগড় সার্কেল অফিসের তথ্য গত জুন মাস থেকে মার্চ মাস পর্যন্ত রেজিস্ট্রেশনের আবেদন করেছেন ৪ হাজার ৯৭১ জন। ড্রাইভিং লাইসেন্সের জন্য আবেদন করেছেন ৩ হাজার ৩১০ জন। আর নবায়ন করতে আবেদন করেছেন ১ হাজার ৪০ জন। এর মধ্যে ড্রাইভিং লাইসেন্সের জন্য গত জুন মাস থেকে এখন পর্যন্ত  অপেক্ষা করতে হচ্ছে ১৪৫৫ জন। এরা দিনের পর দিন ঘুরছে। 

 
এ বিষয়ে বিআরটিএ ঠাকুরগাঁও ও পঞ্চগড় সার্কেলের সহকারী পরিচালক জানান, আমরা কাগজপত্র জমা নেয়ার পরেই তা পাঠিয়ে দেই আসতে দেরি হলে আমাদের কি করার। আর বহিরাগতরা স্থানীয় লোকজন তারা কাজ করে নিষেধ করতে পারি না বলে জানান তিনি। তবে উৎকোচের বিষয়টি অস্বীকার করেন তিনি।

 
ঠাকুরগাঁও বিআরটিএতে পদের সংখ্যা কর্মচারী ও কর্মকর্তা ৮ জন। এর বিপরীতে ২জন কর্মকর্তা ও ২জন কর্মচারী রয়েছে। আর রহিরাগতরাসহ কাজ করছে প্রায় ১১ জন।
জেলা-উপজেলা বিভাগের অন্যান্য সংবাদ »