05 Jun 2019   03:39:27 PM   Wednesday   BdST

চাঁদ দেখার বিষয়টি যেভাবে নিশ্চিত করেন কুড়িগ্রামের ডিসি

মাহাবুর আলম সোহাগ : সকল আলোচনার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে বুধবার উদযাপিত হচ্ছে পবিত্র ঈদুল ফিতর। সারাদেশের ধর্মপ্রাণ মুসুল্লিরা এদিন ঈদের নামাজ আদায় করেছেন। তবে চাঁদ দেখা নিয়ে আলোচনা এখনও থেমে নেই সাধারণ মানুষের মাঝে। যদিও এ নিয়ে গতকাল মঙ্গলবার ঈদুল ফিতর কবে হবে সেটা নিয়ে বেশ দ্বিধা দেখা দেয়।

 
রাত নয়টায় চাঁদ দেখা কমিটি জানায়, বাংলাদেশের কোথাও শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। তাই ঈদ অনুষ্ঠিত হবে বৃহস্পতিবার। এ সিদ্ধান্তের পর কুড়িগ্রামের তিন উপজেলা, লালমনিরহাটের এক উপজেলায় চাঁদ দেখা গেছে মর্মে দ্বিতীয় দফায় আবারও বৈঠকে বসেন চাঁদ দেখা কমিটি।

 

এরপর রাত ১১টার দিকে জানানো হয় শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা গেছে। বুধবার পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপিত হবে।জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সভাকক্ষে কমিটির বৈঠক শেষে চাঁদ দেখতে পাওয়ার সংবাদ জানান ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ আবদুল্লাহ।

 

বৈঠকে মন্ত্রী লেন, রাতে কুড়িগ্রামের ভুরুঙ্গামারী ও লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলায় অনেকে চাঁদ দেখতে পেয়েছেন বলে খবর পান। কুড়িগ্রাম জেলার ডিসি বিষয়টি জোরালোভাবে উপস্থাপন করলে চাঁদ দেখা কমিটি নতুন করে এ সিদ্ধান্ত নেন।

 

এ বিষয়ে জাগো নিউজের কথা হয় কুড়িগ্রামের জেলা প্রশাসক সুলতানা পারভিনের সঙ্গে। তিনি বলেন, টিভিতে ৯টায় ঈদ হচ্ছে না সংবাদ দেখার পর কুড়িগ্রামের ভুরুঙ্গামারী, নাগেশ্বরী ও ফুলবাড়ীর লোকজন আমাকে ফোন করা শুরু করে। প্রায় ৫০-৬০ জনের ফোন রিসিভ করি। সবার একই কথা আমরা চাঁদ দেখেছি। পরে সচিব স্যারের সঙ্গে কথা বলি। স্যার লিখিত দিতে বলেন। পরে ইউএনওদের মাধ্যমে লিখিত নিই। তাদের তথ্য নিয়ে আমি লিখে পাঠাই।